বেঙ্গালুরু: এ ছবি, এই খবর অনুপ্রাণিত করবে প্রত্যেক শুভবুদ্ধিসম্পন্ন ব্যক্তিকে৷ সাহসিকতার এমন নিদর্শনের কথা ইতিমধ্যেই ঘুরছে মুখে মুখে৷ যেখানে লাগাতার বৃষ্টিতে বন্যায় ডুবে গিয়েছে ব্রিজ, সেখানে একটি অ্যাম্বুলেন্সকে বিপদ অগ্রাহ্য করে জলের মধ্যে রাস্তা দেখিয়ে গাইড করে নিয়ে গেল ১২ বছরের এক কিশোর৷ আর তার এই সাহসিকতার জন্য তার হাতে তুলে দেওয়া হল শংসাপত্র৷

জানা গিয়েছে, ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ভেঙ্কটেশ কর্ণাটকের রায়চুরের একটি গ্রামে খেলছিল৷ তখনই দেখা যায় বন্যার অথৈ জলে কিমকর্তব্যবিমূঢ় অ্যাম্বুলেন্সের চালক৷ গাড়ির মধ্যে এক মহিলার মৃতদেহ এবং ৬ টি শিশু রয়েছে৷ চালক সাহায্যের জন্য বললে জল অগ্রাহ্য করে সাহায্য করতে রাজি হয়ে যায় ভেঙ্কটেশ৷ এবং জলের মধ্যে অ্যাম্বুলেন্স গাইড করতে থাকে৷ এই দৃশ্যই মোবাইলে বন্দি হয় এবং ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সংবাদ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে সময় নেয়নি৷

উল্লেখ্য, কর্ণাটকে বন্যার কারণে কমপক্ষে ৬০ জনের মৃত্য হয়েছে৷ প্রায় সাত লক্ষ মানুষ গৃহহীন৷ নিখোঁজ প্রায় ১৫৷ ইতিমধ্যেই হাজার ত্রাণশিবির খোলা হয়েছে সাহায্যের জন্য৷ বন্যার জলে ভেসে গিয়েছে ৬০,০০০ ঘরবাড়ি৷

মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা নিহতদের পরিবারের জন্য ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন৷
লাগাতার বৃষ্টিতে এই বন্যাবিধ্বস্ত কর্ণাটকের ভোগান্তি যে এতো তাড়াতাড়ি শেষ হবে না এমনটাই জানা যাচ্ছে৷ কারণ আরও বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে৷ ফলে পরিস্থিতি আরও জটিল হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷