নয়াদিল্লি: ১১টি গ্রামের নাম পরিবর্তন করার আবেদন জমা পড়ে আছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফ থেকে লোকসভায় এই তথ্য জানানো হয়েছে। এছড়া ২০১৭-র ডিসেম্বর থেকে এখনও পর্যন্ত ২২টি গ্রামের নাম পরিবর্তনে ‘নো অবজেকশন’ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।

যেসব জায়গার নাম পরিবর্তনের আবেদন জানানো হয়েছে সেই তালিকায় রয়েছে রাজস্থানের সালেমাবাদ যার নাম হওয়ার কথা শ্রীনিম্বার্ক তীর্থ। নাগাল্যান্ডের ওয়ানসোই হবে ওয়ানথোই। মহারাষ্ট্রের গোড়ওয়াড়ি হবে ওয়েস্ট উমবারজ, নাগাল্যান্ডের তামকোনং হবে তামকোয়াং, হরিয়ানার লুলা আহির হবে কৃষাণ নগর, মধ্যপ্রদেশের দুর্জনপুর হবে শিবধাম।

এছাড়া, রাজস্থানে নবাবপুরা হবে নাই সরথাল, রামপুরা আজমপুরা হবে সীতারামজি কা খেরা, মহম্মদপুরা হবে সীতারামজি কা খেরা। হরিয়ানার বাল রাগদান হবে বাল রাজপুতান। নাগাল্যান্ডের ওল্ড মাংখি হবে মুংগাখিউন। হরিয়ানার কুটিয়া খেরি হবে বীরপুর আর রাজস্থানের বিজয় বাওয়ারি হবে চোর বাওয়ারি।

২২টি জায়গার নাম পরিবর্তনের অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্র। এর মধ্যে রয়েছে উত্তরপ্রদেশের পাংকি রেল স্টেশন যার নাম হয়েছে পিনাকী ধাম। ইসলামইপুরা হয়েছে পিচানোয়া খুরদ, মিঞো কা বারা হয়েছে মহেশনগর।

এছাড়া আগেই মুঘল সরাইয়ের নাম বদলে হয়েছে দীন দয়াল উপাধ্যায়, মধ্যপ্রদেশের বীরসিংপুর পালি হয়েছে মা বীরসিনি ধাম।

মুঘল সরাইয়ের নাম পরিবর্তনের পর থেকেই শুরু হয়েছে এই ট্রেন্ড। সম্প্রতি হায়দরাবাদ, মুজফফনগরের মত জায়গাগুলির নামও বদলে ফেলার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ