নয়াদিল্লিঃ  উৎসবের মরশুমে বড় ঘোষণা করল মোদী সরকার। বিশেষে করে রেলের লক্ষাধিক কর্মীর কাছে অবশ্যই সুখবর। রেকর্ড বোনাস ঘোষণা করল মোদী সরকার। একেবারে মোটা অংকের বোনাস ঘোষণা করা হয়েছে। পুজোর মুখে এই ঘোষণা উপকৃত হবেন রেলের ১১ লক্ষ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মী। মোদী সরকারের এই ঘোষণায় উৎসবে মেতেছেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা।

আজ বুধবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন এবং পরিবেশমন্ত্রী প্রকাশ জাভেড়কর সাংবাদিক বৈঠক করেন।

বৈঠকে কেন্দ্রীয়মন্ত্রী জাভড়েকর বলেন, ৭৮ দিনের বোনাস ঘোষণা করা হচ্ছে রেল কর্মীদের জন্যে। প্রায় সাড়ে ১১ লক্ষ কর্মী এই বোনাস পাবেন বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। প্রকাশ জাভেড়করের আরও দাবি করেছেন যে, গত ৬ বছর ধরে রেকর্ড পরিমাণে বোনাস দিচ্ছে মোদী সরকার। আর সেই মতো এই বছরও উৎসবের মরশুমে কর্মীদের বোনাস দেওয়া হচ্ছে। কেন্দ্রীয়মন্ত্রীর দাবি মতো প্রায় ১১,৫২,০০০ রেল কর্মীকে এই বোনাস দেওয়া হচ্ছে। এই বোনাসের আওতায় থাকবেন সাধারণত নিচু তলার কর্মীরা। এই বোনাস দেওয়ায় সরকারের খরচ হবে ২,০২৪ কোটি টাকা, এমনটাই জানা গিয়েছে।

প্রত্যেক বছরই উৎসবের মরশুমে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্যে বোনাস ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় সরকার। এই বছরও তা করা হল। শুধু কেন্দ্রই নয়, রাজ্যও সরকারও উৎসব ভাতা ঘোষণা করে। ইতিমধ্যে রাজ্যের লক্ষাধিক সরকারি কর্মীর জন্যে বোনাস ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অন্যদিকে, বোনাস ঘোষণা করার পাশাপাশি ই সিগারেট নিষিদ্ধ করল কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন জানিয়েছেন, “ই-সিগারেটের প্রচার মানুষকে ধুমপানের অভ্যাস থেকে বের করে আনার জন্যই এর ব্যবহার শুরু হয়েছিল তবে সময়ের সঙ্গে বিভিন্ন রিপোর্ট উঠে এসেছে যে, সাধারণ মানুষের মধ্যে ইলেকট্রনিক সিগারেট নেশার মত ছড়িয়ে গেছে।” এই সিদ্ধান্তের ফলে বাজেটে ২০২৮ কোটি টাকার প্রভাব পড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।

এই প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, “রিপোর্ট বলছে একটি বড় অংশের মানুষ ই-সিগারেটকে তাঁদের অভ্যাস বানিয়ে ফেলেছে। যেন এই ব্যাপারটা ভীষণ কুল এবং ট্রেন্ডি একটি বিষয়। মনে করা হচ্ছে, ৪০০ বেশি ব্র্যান্ড আছে যার একটিও ভারতীয় নয়। প্রত্যেক ব্যান্ডের মধ্যে ১৫০ টি ফ্লেভার আছে।” প্রত্যেক ব্যান্ডের মধ্যে ১৫০ টি ফ্লেভার আছে।” স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রীসভার এই দল। নির্মলা সীতারমন এই কমিটির প্রধান।