টোকিও: একশ বছর বয়স পর্যন্ত বেঁচে থাকাটাই তো এক ধরেণর রেকর্ড! আর এই বয়সেই কিনা সাঁতারে রেকর্ড গড়া! এমই অসাধ্য সাধন করে দেখালেন মিয়াকো নাগাওকা৷ এই মহিলা রীতিমতো তারকা সাঁতারু! পুল দাপিয়ে বেড়িয়ে জিতে নেন একের পর এক পুরস্কার! এই নাগাওকাই জাপানের একটি প্রতিযোগিতায় এবার ১৫০০ মিটার সাঁতরে রেকর্ড গড়ে প্রমাণ করেছেন বয়স সত্যিই তাঁর কাছে একটি সংখ্যা ছাড়া আর কিছুই নয়।
আরও আশ্চর্যের ব্যাপার হচ্ছে নাগাওকা সাঁতার শিখেছেন ৮২ বছর বয়সে! এও কী সম্ভব! শারীরিক একটি সমস্যার কারণে চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী সাঁতার শিখেছিলেন। ব্যাপারটা এতটাই ভালো লেগে যায় যে ৮৪ বছর বয়সে বনে যান পেশাদার সাঁতারু। এর পর আর পেছন ফিরে তাকাননি তিনি। জিতেছেন একের পর এক পদক। ৮৮ বছর বয়সে ৫০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন এক প্রতিযোগিতায়। এর পরে তিনি জেতেন তিনটি রুপোর পদক। এই পদকগুলো আসে ৫০, ১০০ ও ২০০ মিটার ব্র্যাকস্ট্রোকে।
এখানেই থেমে থাকেননি তিনি। ভালো সাঁতারু হওয়ার বিষয়টিকে বানিয়ে ফেলেন জীবনের ব্রত। কোচের কাছে গিয়ে শিখতে থাকেন সাঁতারের খুঁটিনাটি। ৯০ বছর বয়সে ৮০০ মিটার ফ্রি-স্টাইল সাঁতারে গড়েন জাপানের জাতীয় রেকর্ড। ৯৫ বছর বয়সে একটি মাস্টার্স মিটে ৫০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে গড়েন বিশ্ব রেকর্ড।
সম্প্রতি জাপানের মাতসুয়ামার একটি মাস্টার্স সাঁতার প্রতিযোগিতায় ১৫০০ মিটার সাঁতরাতে পুলে নেমেছিলেন তিনি। সবাইকে অবাক করে দিয়ে তিনি গড়েন নতুন জাপানি রেকর্ড। ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট ৫৩৪ সেকেন্ডে দূরত্ব অতিক্রম করে তিনি নিজেকে নিয়ে যান মহামানবিক জায়গায়!