তেহরান: জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ইরান জুড়ে চলছে বিক্ষোভ। সরকারি নির্দেশে বিক্ষোভকারীদের থামানোর সবরকম প্রচেষ্টা চালাচ্ছে নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী। আর সেই অভিযানে শতাধিক বিক্ষোভকারীকে হত্যা করা হয়েছে বলে রিপোর্ট। সংবাদসংস্থা এএফপি-র রিপোর্ট অনুযায়ী, মৃতের সংখ্যা অন্তত ১০৬। আবার কোনও কোনও সূত্র বলছে, ২০০ জনেরর বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

ব্রিটিশ মানবাধিকার সংস্থা মঙ্গলবার এই রিপোর্ট দিয়েছে।

ইরানে সরকারবিরোধী এই বিক্ষোভে চলছে গত কয়েকদিন ধরে। কয়েক হাজার আন্দোলনকারীকে আটক করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে সৌদি সংবাদ মাধ্যম। জানা গিয়েছে, অগ্নি সংযোগ করা হয়েছে শতাধিক ব্যাংকের কার্যালয়ে। সংঘাত উস্কে দেয়ার জন্য বিদেশি ইন্ধনকে দায়ী করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা। বিশৃঙ্খলা সহ্য করা হবে না বলে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। অন্যদিকে, বিক্ষোভে সমর্থন জানাবে বলে ঘোষণা করেছে আমেরিকা।

গত শুক্রবার জ্বালানির দাম বাড়ানোর পর থেকেই বিক্ষোভে উত্তাল ইরান। দেশটির বিভিন্ন শহরে শুরু হয় আন্দোলন। জ্বালিয়ে দেও হয় ব্যাংক, ফিলিং স্টেশন, সাধারণ মানুষের গাড়ি-বাড়ি। হামলা চালানো হয় নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর। সংঘর্ষে হতাহত হয়েছেন বহু মানুষ। আটক করা হয় ১ হাজার বিক্ষোভকারীকে।

ইরানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাফর মুন্তাজিরি বলেন, অবশ্যই আমাদের পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থা এবং বিচার ব্যবস্থা অত্যন্ত শক্তিশালী। বিপ্লববিরোধী কর্মকাণ্ড এবং সংঘাত বন্ধ করুন। শিগগিরই প্রকৃত দোষীদের চিহ্নিত করা হবে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে জরুরি বৈঠক করেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। বলেন, আন্দোলনের অধিকার জনগণের রয়েছে। তবে বিশৃঙ্খলা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। এরমধ্যেই, জ্বালানির দাম বাড়ানোয় সমর্থন জানিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয়নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি বলেন, কিছু মানুষ এ সিদ্ধান্তে ভীত। এতে কোনো সন্দেহ নেই। তবে যারা অগ্নি সংযোগ, ভাঙচুর চালিয়েছে তারা সাধারণ মানুষ নয়। তারা গুণ্ডা। নিরাপত্তা বাহিনী অবশ্যই তাদের দায়িত্ব পালন করবে।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত জন রাকোলতা বলেন, হতাশা থেকে ইরানের মানুষ আন্দোলনে অংশ নিয়েছে। তারা স্বাধীনতা চায়। তারা নিজেরাই বলেছে, ইরানের উচিৎ যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা করা। সমঝোতা করা। যার দ্বারা সবাই উপকৃত হবে।