রোমান্স, কমেডি, থ্রিলার সব কিছুকে পিছনে ফেলে আজও ভূতের চর্চা জিতে যায় বারংবার। সে ছবি হোক বা গল্পের বই মুচমুচে ভূতের সাক্ষাৎ পেলে লাগে না আর কিছুই। আট থেকে আশি সব্বার কাছে ভূতের কাটতি সবচাইতে বেশি। বাইরে হালকা বৃষ্টি সঙ্গে গরম কফি সহযোগে দেখেই ফেলা যায় হাড় হিম করা সব ভূতের সিনেমা। পাশে মনের মতো সঙ্গী থাকুক বা না থাকুক আপনাদের জন্য আমাদের  তরফে আজ রইল হাড় হিম করা কিছু ভূতের সিনেমার হদিস।

১. দি এক্সজরসিস্ট (The Exorcist collection (US), 1973 – 2005)
ভূতের পাল্লায় ছোট্ট রেগনের অবস্থা চাক্ষুস প্রত্যক্ষ করতে দেখুন দি এক্সজরসিস্ট। খাটের রক্তাক্ত মাথা মুখ সহ রেগান কেড়ে নিতে পারে আপনার হৃদস্পন্দন।
২. দি জু-অন সিরিজ (The Ju-On series (Japan), 1998 – 2015)
ভূতের বাড়ির উপর যদি আপনার মায়া থেকে থাকে তাহলে দেখে ফেলুন ছবিটি। কাঁপতে কাঁপতে বালিশ আঁকড়ে ধরতে বেশি সময় লাগিবেনা। সিরিজের সর্বশেষ সিনেমাটি গত জুনেই রিলিজ করেছে। তবে জাপানি ভার্সানটাই দেখুন।

৩. দি রিঙ্গু ট্রিয়োলজি (The Ringu  trilogy (Japan), 1998 – 2000)
হৃদরোগের সমস্যা থাকলে এই ছবিটি এড়িয়ে যান। রিঙ্গুর আসল জাপানি সংস্করণ টা না দেখাই ভালো। যদি নিজেকে খুব সাহসী বলে প্রমাণ করতে হয় তাহলে রিঙ্গুই আপনার সাহসের আসল ঔষধ।

৪. ১৪০৮ (1408 (US), 2007)
ছোট গল্প অবলম্বনে তৈরি এই ছবি দেখতে হলে প্রথমেই চুল খোলা ভূতের আশা ছাড়তে হবে। ভূত নয়, মানুষের ভিতরের ভয়ই এই ছবির আসল উপজীব্য। এক হোটেলের ঘর যেখানে সবাই মৃত সেখানে কিভাবে একজন রয়েছেন তা নিয়েই গল্প।

৫. এ টেল অফ টু সিস্টার (A Tale Of Two Sisters (South Korea), 2003)
চিত্রনাট্য ও গল্পের বুনটে এই ছবি আর পাঁচটি ভুতের ছবিকে স্বাচ্ছন্দে পিছনে ফেলতে পারে। গল্পের শেষের টুইস্ট আপনাকে ভাবিয়ে যাবে বেশ কিছু দিন।

৬. সাটার (Shutter (Thailand), 2004)
তৈরি হওয়ার পর থেকেই বহু মানুষের ঘুম কেড়েছে এই ছবি। একবার দেখতে শুরু করলে আপনি চোখ ঘোড়াতে পারবেন না। শেষ সিনের ভয় আপনাকে সাড়া জীবনের জন্য ভয়ের স্মৃতি দিয়ে জেতে বাধ্য।

৭. দি কনজুরিং (The Conjuring (US), 2013)
ভূতের গল্প যারা আজগুবি বলে উড়িয়ে দেন তাদের একবার দেখান কনজুরিং। সম্পূর্ণ সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি এই ছবির প্রথম থেকে শেষ আপনাকে বাড়বাড় দাঁড় করাবে ভয়ের মুখোমুখি।

৮. দি শাইনিং (The Shining (US), 1980)
আচমকা শব্দে চমকে উঠেছেন এই রকম নিশ্চই বহু বার হয়েছে। তাহলে জেনে নিন শব্দই আমাদের ভয়ের অন্যতম উৎস। এবার সেই শব্দ থেকে ভয় পেতে হলে দেখে ফেলুন দি সিনিং। সমালোচকদের মতে সব থেকে সেরা ভূতের ছবি হিসেবে বাড়বার মর্যাদা পেয়েছে সিনিং।

৯. রসমারিস বেবি (Rosemary’s Baby (US), 1968)
ইরা লেভিনের উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি এই ছবি এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে নিয়ে তৈরি। যার গর্ভস্থ সন্তানকে মারতে উঠে পড়ে লেগেছে কিছু দুষ্টাত্মা।

১০. ইনসিডিয়াস (nsidious & Insidious 2 (US), 2011 – 2013)
দুটি পার্টের ইনসেডিয়াস দেখার পর আপনি আর একলা শুতে চাইবেন না। প্রথম পার্ট অতটা ভয়ের না হলেও দ্বিতীয়টা আপনাকে দিনের আলোতেও ভয় পাওয়াবে। আগামী জুন মাসে রিলিজ করছে ইনসেডিয়াসের দ্বিতীয় ভাগ।

১১. মামা (Mama (US), 2013)
মায়ের ভালোবাসা ফিরে আসে ভয় হয়ে। ভয়ের অন্য নাম মামা। দেখে ফেলুন কাউকে সঙ্গে নিয়ে।

১২. দি উইকার ম্যান (The Wicker Man (Britain), 1973)
১৯৭৮ সালে বেস্ট ভূতের সিনেমার শিরোপা পাওয়া এই ছবি রহস্য ও ভূতের অদ্ভুত এক মেলবন্ধন। সর্বকালীন ১০০ ভূতের সিনেমার তালিকায় উপরের দিকেই স্থান পেয়েছে ছবিটি।

১৩. ডেড সাইলেন্স (Dead Silence (US), 2007)
কাউকে তার পুতুল দেখে ভয় পেতে দেখে যদি অবাক হয়ে থাকেন তাহলে অবাক হওয়ার কিছু নেই। সেই তালিকায় আপনিও জেতে চলেছেন এই ছবি দেখার পর। এক বৃদ্ধা ও তার পুতুল নিয়ে তৈরি এই সিনেমাটি।

১৪. দি আই (The Eye (Hong Kong), 2002)
চোখের ভয় এর আরেক নাম দি আই। চোখ দেখে ভয় পেতে হলে ছবিটি অবশ্যই দেখুন।

১৫. রেইনকারনেশন (Reincarnation (Japan), 2005)
অন্ধকার ও রহস্যের অন্যতম মেলবন্ধন রেইনকারনেশন। একবার দেখে অন্যদের আর দেখতে বারন করেছেন প্রত্যেকে। আমরা বলছি নিজের দায়িত্বে দেখে ফেলুন।
সব শেষে, নিজের দায়িত্বে বিজ্ঞান ও রহস্যের অন্য এক জগত-এর সাদ পেতে দেখে ফেলুন ছবি গুলি, তবে অবশ্যই নিজের দায়িত্বে।