প্রতীকী ছবি

কলকাতা: রেশন নিয়ে বিরোধীদের পাশাপাশি রাজ্যপালও সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছেন৷ অন্যদিকে রেশন দুর্নীতি রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার৷

সূত্রের খবর, রেশনে কালোবাজারি করা বা সামগ্রী কম দেওয়ার অভিযোগে ১০ জন রেশন ডিলারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ এছাড়া খাদ্য দফতর ৬৪ জনকে সাসপেন্ড করেছে৷ এবং শো-কজ করা হয়েছে ৩৫৯ জনকে৷ জরিমানা করা হয়েছে ২৫ জন রেশন ডিলারকে৷

এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শো-কজের ঘটনা ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগণায়। এরপর দক্ষিণ ২৪ পরগণা, নদীয়া ও মুশিদাবাদে। সবচেয়ে বেশি সাসপেন্ড হয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর ও নদীয়া জেলায়৷ আর জরিমানা বেশি হয়েছে আলিপুরদুয়ারে৷

অন্যদিকে বুধবার সকালে রেশনের কালোবাজারি ও ডাল নিয়ে ট্যুইট করেছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়৷ তার পরিপ্রেক্ষিতে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের অভিযোগ, “এক অদ্ভুত প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছেন রাজ্যপাল। উনি প্রতিদিন একটা নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি করে চলেছেন।”

মন্ত্রীর অনুরোধ চাইলে রাজ্যপাল রাস্তায় নেমে যারা রেশন প্রাপক তাদের কাছে গিয়ে জানতে চাওয়া হোক। তারা রেশন পেয়েছেন কিনা! প্রয়োজন হলে উনি খাদ্য ভবনে এসে আধিকারিকদের সাথে কথা বলে দেখতে পারেন। প্রকৃত তথ্য তারা ওনাকে দিয়ে দেবে৷

ইতিমধ্যে রেশন দুর্নীতি রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার৷ বেশ কয়েকটি রেশনে দোকানের লাইসেন্স বাতিল হয়েছে বলেও খাদ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। সূত্রের দাবি, যেখানে যেখানে রেশন ডিলারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে সেই সব জায়গায় আপাতত চাল-ডাল বিলির ব্যবস্থা সরাসরি খাদ্য দফতরের অফিসাররা সামলাবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প