লন্ডন: বিশ্ব মহামারীর তকমা অনেক আগেই দেওয়া হয়েছে করোনাকে। তবে সেই মারণ ভাইরাস যে এভাবে ছড়িয়ে পড়বে, তা বোধহয় কল্পনার আতীত ছিল। বিশ্ব জুড়ে ১ মিলিয়ন পার করল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

প্রত্যেকদিনই লাফিবে লাফিয়ে বাড়ছে সংখ্যাটা। বিশেষত স্পেন, ইতালি থেকে যে হিসেব সামনে আসছে, তা সত্যিই উদ্বেগজনক। জন হপকিনস ইউনিভার্সিটির দেওয়া হিসেব অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত ১০ লক্ষের বেশ মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে।

মৃত্যু হয়েছে ৫১০০০ মানুষের আর সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ২ লক্ষেরও বেশি মানুষ। আমেরিকায় আক্রান্তের সংখ্যা সবথেকে বেশি। ইতালিতে মৃত্যু সবথেকে বেশি। মাত্র তিন মাস আগে চিনে এই রোগের সূত্রপাত। আর এই ক’দিনেই আগুনের মত ছড়িয়ে পড়ল সেই ভাইরাস।

স্পেনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ইতিমধ্যে ১০ হাজার ছুঁয়েছে। যা যথেষ্ট ভয়াবহ। ইতিমধ্যে স্পেনেও প্রবলভাবে ছড়িয়ে পরেছে করোনা ভাইরাস। যার জেরে সে দেশের প্রশাসনের তরফে জারি করা হয়েছে সতর্কতা। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ এক রাতের মধ্যে সে দেশে করোনা ভাইরসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে দশ হাজারে। যার জেরে আতঙ্কিত সেদেশের সাধারণ মানুষ। এমনটাই জানিয়েছেন সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানা গিয়েছে বুধবার থেকে সে দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১০২৩৮। তবে আনুপাতিক হারে দৈনিক ব্রিদ্ধির হার গত কয়েকদিনে যথেষ্ট কমেছে। যা দেখে কিছুটা হলেও স্বস্তিতে সে দেশের চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীরা। এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরসে আক্রান্ত হয়ে সে দেশের মৃত্যুর সংখ্যা পৌঁছেছে দশ হাজার তিনে। অর্থাৎ আগের থেকে দশ শতাংশ বেড়েছে মৃত্যু।

এদিকে, চিনের ন্যাশনাল হেলথ কমিশন যে রিপোর্ট দিচ্ছে তাতে বলা হয়েছে, উপসর্গবিহীন করোনা আক্রান্ত রয়েছে অন্তত ১৫৪১ জন। এর ফলে তিনি নতুন করে করো না সংক্রমণের প্রবণতা তৈরি হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

জানানো হয়েছে, গত সোমবার পর্যন্ত এরকম ১৫৪১ জন রোগীকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে, যার মধ্যে ২০৫ জন দেশের বাইরে থেকে এসেছেন। এরকম উপসর্গবিহীন আক্রান্ত ছাড়াও ৩৫ জন নতুন করনা আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে যারা দেশের বাইরে থেকে এসেছে। এর ফলে চিনের বাইরে থেকে আসা করণে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮০৬।

চিনে এই রোগে নতুন করে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে সেখানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হলো ৩৩১২। প্রথম থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত চিনে করোনা আক্রান্তের মোট সংখ্যা ৮১৫৫৪।