নয়াদিল্লি: প্রত্যেকদিন সকালেই করোনা আক্রান্তের নতুন পরিসংখ্যান এসে পৌঁছচ্ছে। বৃহস্পতিবার যে রিপোর্ট এসেছে, তা অনুযায়ী দেশ জুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫১ লক্ষ ১৮,২৫৩।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৯৭,৮৯৪ জন। আর এই মুহূর্তে দেশ জুড়ে অ্যাক্টিভ করোনা আক্রান্ত ১০ লক্ষের গণ্ডী পার করল।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা দেশে মৃত্যু হয়েছে ১১৩২ জনের। এই নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৮৩,১৯৮।

মহারাষ্ট্রেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবথেকে বেশি। সেইসঙ্গে অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্ণাটকে আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে। দেশের মোট আক্রান্তের ৪৯ শতাংশই ওই তিন রাজ্যে।

আপাতত ভ্যাক্সিনের অপেক্ষায় দিন গুণছে গোটা বিশ্ব। এই আবহেই সুখবর শোনাল রাশিয়া। অনুমোদন পেলেই ভারতে ১০ কোটি করোনার ভ্যাকসিন দেবে পুতিনের দেশ। বুধবার রাশিয়ার তরফে এই তথ্য জানানো হয়েছে। বিশ্বে সবার আগে করোনার ভ্যাকসিন আবিস্কার করেছে রাশিয়া। রাশিয়ার তৈরি স্পুটনিক ভ্যাকসিনের ১০ কোটি ডোজ ভারতে আসা এখন সময়ের অপেক্ষা।

সংবাদসংস্থা রয়টার্স সূত্রে জানা গিয়েছে, আপাতত ভারতে স্পুটনিক ভ্যাকসিনের ১০ কোটি ডোজ পাঠানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাশিয়া। তবে পরবর্তী ক্ষেত্রে আরও ভ্যাকসিনও পাঠানো হতে পারে।

ভারতে রাশিয়ার ভ্যাকসিন এলেই তার ট্রায়াল শুরু হবে। ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা সম্পর্কে ১০০ ভাগ নিশ্চিত হওয়ার পরেই তা প্রয়োগের পথে হাঁটবে কেন্দ্র।

বিশ্বের একাধিক দেশ করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করছে। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি দেশ সফলতার সঙ্গেই ভ্যাকসিন তৈরির কয়েকটি ধপ পার করেছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, আগামী এক মাসের মধ্যেই করোনার ভ্যাকসিন বাজারে আনতে পারে আমেরিকা। তিনি বলেন, ‘‘আমরা ভ্যাকসিনের খুব কাছাকাছি আছি। কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আমরা এটা পেতে পারি। সময়টা তিন থেকে চার সপ্তাহ হতে পারে।”

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।