নয়াদিল্লি: করোনা পরিস্থিতিতে শিল্পক্ষেত্রকে চাঙ্গা করতে সংকটে থাকা দশটি ক্ষেত্রে উৎপাদন বাড়াতে উৎসাহ ভাতা ঘোষণা করেছে মোদী সরকার। সরকারের লক্ষ্য এই পদক্ষেপের ফলে লগ্নি আকর্ষণ ও উৎপাদন বৃদ্ধি।

এজন্য আগামী পাঁচ বছর ওই দশটি ক্ষেত্রে ১.৪৬ লক্ষ কোটি টাকা খরচ করা হবে।১০টি ক্ষেত্রের মধ্যে যেখানে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ করা হবে সেটা হলো গাড়ি ও গাড়ির যন্ত্রাংশ ক্ষেত্রে। এই ক্ষেত্রে ৫৭ হাজার কোটি টাকা ধরা হয়েছে।

যে ১০টি ক্ষেত্রের জন্য উৎপাদনভিত্তিক উৎসাহ ভাতা প্রকল্প চালু হচ্ছে, সেগুলি হল-
১)গাড়ি ও গাড়ি যন্ত্রাংশ
২)এসিসি ব্যাটারি
৩)ফার্মাসিউটিক্যাল
৪)টেলিযোগাযোগ ও নেটওয়ার্কের পণ্য
৫)বস্ত্র
৬)খাদ্যপণ্য
৭)বাতানুকূল যন্ত্র, এলইডি
৮)ইলেকট্রনিক, প্রযুক্তি
৯)বিশেষ ধরনের ইস্পাত
১০)অত্যাধুনিক সোলার পিভি মডিউল

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের অভিমত, এর ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে দেশের সংস্থাগুলির প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে সুবিধা হবে। নতুন লগ্নি আসবে এবং রফতানি বাড়বে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারে ভারত একটা জায়গা করে নেবে সরবরাহকারী দেশগুলির মধ্যে। তিনি মনে করছেন আত্মনির্ভর ভারতের নীতি মেনেই এই উৎসাহ ভাতা আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে দেবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I