কেপটাউন: দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটে বর্ণগত বিভাজন আরও বিরাজমান৷ মঙ্গলবার ৩০ জন ব্ল্যাক প্রোটিয়া ক্রিকেটার বিবৃতি জারি করেছিলেন যে বর্ণবাদ এই খেলায় একটি কারণ হিসাবে রয়েছে। পাশাপাশি চিঠিতে বর্তমান ফাস্ট বোলার লুঙ্গি এনগিদির প্রশংসা করা হয়েছে৷

গত সপ্তাহে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটারের প্রতি সমর্থন জানান প্রোটিয়া পেসার এনগিদি৷ ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে প্রোটিয়া পেসার লুঙ্গি এনগিদির মন্তব্যে সমালোচনার ঝড়। প্রাক্তন দুই প্রোটিয়া ক্রিকেটার রুডি স্টেইন এবং বোয়েটা ডিপেনারের সমালোচনার মুখে পড়তে হল দেশের বর্ষসেরা ওয়ান-ডে এবং টি২০ ক্রিকেটারকে।

সম্প্রতি একটি ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ নিয়ে বলতে গিয়ে এনগিদি জানিয়েছিলেন, ‘আমার মনে হয় দল হিসেবে এই আন্দোলনকে নিশ্চয় আমাদের সমর্থন জানানো উচিৎ। আর আমরা যদি সেটা না করি তাহলে অন্তত আমি এই আন্দোলনকে সমর্থন করব। বিষয়টাকে আমাদের গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা উচিৎ। যেমনটা বাকি বিশ্ব করছে। আমাদের একটা দৃষ্টিভঙ্গি পরিষ্কার করা দরকার।’

একই সঙ্গে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (সিএসএ)-কে এই আন্দোলনের পক্ষে দৃঢ়ভাবে মত প্রকাশ করার আহ্বান জানিয়েছিলেন। স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে ছিলেন ১০১টি টেস্ট ম্যাচ খেলা প্রাক্তন প্রোটিয়া ফাস্ট বোলার মাখায়া এনতিনি, ভার্নন ফিল্যান্ডার, হার্শেল গিবস, অ্যাশওয়েল প্রিন্স, পল অ্যাডামস এবং জেপি ডুমিনির মতো প্রাক্তন তারকা ক্রিকেটাররা৷ পাঁচ জন কোচ-সহ মোট ৩৬ জন ক্রিকেটার এই নথিতে সই করেন৷

তবে এই সই ছিল না কাগিসো রাবাদা এবং এনগিদি-র মতো বর্তমান কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড়দের বা কোনও সাদা খেলোয়াড়দের৷ বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে তিন দশক ধরে ক্রিকেট ঐক্যবদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও, বর্ণ বিভেদের একদিক থেকে প্রকাশিত মতামত এখনও আমাদের জীবনের অংশ …আমরা সিএসএ-র পক্ষে এটির অবস্থান সম্পর্কে দ্ব্যর্থহীন হওয়ার এবং এটি নিশ্চিত করার অপেক্ষায় রয়েছি৷ আমরা আমাদের সহকর্মী ক্রিকেটারদের মানবিক মর্যাদার রক্ষায় এই পদক্ষেপে যোগ দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানাই।’ তবে এই বিবৃতি-র পরিপ্রেক্ষিতে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ