বালুরঘাটঃ সদস্য সংগ্রহ অভিযানে গিয়ে তৃণমূল কর্মীদের হাতে আক্রান্ত বিজেপির ওয়ার্ড সভাপতি। গঙ্গারামপুর শহরের ঘটনা। আক্রান্ত বিজেপি সভাপতি অজিত দাস জখম অবস্থায় হাসপাতাকে ভর্তি আছেন। রবিবার দুপুরে গঙ্গারামপুরের এই ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনায় থানায় অভিযোগ জানানো হলে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও অভিযুক্তদের কাউকে এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করতে পারেনি।

গত কয়েকদিন ধরেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা জুড়ে বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান কর্মসূচি চলছে। রবিবার সকাল থেকেই বিজেপি সভাপতি অজিত দাসের নেতৃত্বে যুবমোর্চার কর্মীরা সদস্য সংগ্রহ অভিযানে এলাকায় বেড়িয়েছিলেন। অভিযোগ ১০নং ওয়ার্ডে একদল দুষ্কৃতি সেই অভিযানে বাধা দেয়। বাধা মানতে রাজি না হওয়ায় তাঁদের উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতিরা। অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতিরা বিজেপির লোকেদের মারধরও করেন।

ঘটনায় অজিত দাস নামের বিজেপির ওয়ার্ড সভাপতি মারাত্মক ভাবে জখম হয়েছেন। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে গঙ্গারামপুর সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিজেপি নেতা সনাতন কর্মকার এদিন অভিযোগ করে বলেন যে ২১ জুলাইয়ে এবার গঙ্গারামপুর সহ গোটা দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে হাজারেরও বেশি লোক কলকাতায় তৃণমূলের সভায় যায়নি। এই অবস্থায় বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযানে সাধারণ মানুষ বিশেষ করে যুব সমাজের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে আতংকিত হয়ে পড়েছে তৃণমূল। সেই আতংক থেকেই এই হামলার ঘটনা বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।

বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা ও মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পুরসভার প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান তৃণমুলের অমল সরকার। বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলেরই জেরে ঘটনাটি ঘটেছে বলে তিনি পালটা অভিযোগ করেছেন।