কলকাতা 24X7 ডিস্ট্রিক্ট ব্যুরো: জেলায় জেলায় বিজেপির সংকল্প যাত্রা৷ বাইক নিয়ে মিছিল৷ অনুমতি না থাকায় পুলিশ মিছিল আটকে দিলে বিজেপি কর্মী, সমর্থকদের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ শুরু হয়ে যায় পুলিশের৷ কোথাউ কোথাউ পুলিশকে দেখে ইঁট ছুঁড়তে থাকে গেরুয়া শিবিরের লোকেরা৷ পালটা লাঠি চার্জ করে পুলিশও৷

উত্তর ২৪ পরগনা:
জেলার বারাকপুর, কাঁচরাপাড়ার জোনপুর মোড়ে বাইক ব়্যালি শুরু করে বিজেপি৷ অনুমতি না থাকায় তা আটকে দেয় পুলিশ৷ অশোক নগরেও বিজেপির মিছিল ঘিরে একই ছবি৷ পুলিশ মিছিল আটকানোর সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়ে যায় উভয় পক্ষের ধস্তাধস্তি৷ নৈহাটি জিরাট রোড অবরোধ বিজেপি৷ রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে পথ অবরোধ করা হয়৷ পুলিশ বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করে৷

 

হুগলি:
হুগলীর চুঁচুড়া বিধানসভার বিভিন্ন জায়গায় সংকল্প যাত্রা করে বিজেপি৷ সেই যাত্রা ঘিরেই পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে পদ্ম শিবিরের কর্মী, সমর্থকরা৷ তৈরি হয় উত্তজনা৷

হাওড়া:
গত কয়েক বছরে হাওড়ায় বিজেপির সংগঠন বেড়েছে৷ হাওড়া ময়দান ও ব্যটরাতেও বিজেপির মিছিল ঘিরে এদিন উত্তেজনা ছড়ায়৷ পুলিশের সহ্গে বিজেপি কর্মীদের মারামারি বেঁধে যায়৷

নদিয়া:
নদীয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার তরফেও এদিন সংকল্প যাত্রা করা হয়৷

আসানসোল:
বাবুল সুপ্রিয়র নেতৃত্বাধীন বিজেপির মিছিল ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল আসানসোলের বারাবনির আমডিহা মোড়। মিছিল আটকাতে গিয়ে পুলিশের সঙ্গে বিজেপি সমর্থকদের ব্যাপক ধস্তাধস্তি হয়। অভিযোগ, লাঠি নিয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায় বিজেপি কর্মী, সমর্থকরা। পাল্টা লাঠিচার্জ করে পুলিশও।

বাঁকুড়া:
পুলিশর বাধা সত্ত্বেও বাঁকুড়া জেলা জুড়ে দলের সংকল্প যাত্রা সফল। দাবী বাঁকুড়া জেলা বিজেপির। দলের মণ্ডল সভাপতিদের কর্মকূশলতার জেরে জেলা জুড়েই এই সংকল্প যাত্রা সফল দাবী করেও জেলার বিভিন্ন অংশে পুলিশ বাধা দিয়েছে বলে জেলা বিজেপি সূত্রে পাওয়া খবর৷

বীরভূমে:
এদিন বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে সংকল্প যাত্রা শুরু হয়েছিল বীরভূমে৷ পরে পুলিশ বাঁধা দেয়৷ শুরু হয় উত্তেজনা৷

 

দক্ষিণ দিনাজপুর:
বিজেপির বাইক রেলিতে বাধা পুলিশের। রেলি আটকানোর প্রতিবাদে পুলিশের সাথে ধাক্কাধাক্কি। পরিস্থিতি সামাল দিতে লাঠি চার্জ করে পুলিশ। বালুরঘাট হিলি মোরের এই ঘটনায় জখম এক বিক্ষোভকারী। পরে রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মীরা৷