বর্ধমান: করোনা আতঙ্কের আবহেই এবার রেশন বণ্টন ব্যবস্থায় দুর্নীতির অভিযোগে সরব বিজেপি। রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখালেন বিজেপির বর্ধমান সদর জেলা কমিটির কর্মকর্তারা। বর্ধমানের ইছলাবাদে রাস্তার পাশে বসে গলায় প্লাকার্ড ঝুলিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে একাধিক ইস্যুতে মৌন বিক্ষোভ দেখান বিজেপির জেলা কমিটির সদস্যরা।

বিজেপির জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুনীল গুপ্তা জানিয়েছেন, রেশনে খাদ্যসামগ্রী বণ্টন নিয়ে তৃণমূল নেতারা দুর্নীতি করে চলেছেন। কেন্দ্রীয় সরকার ২০০ কোটি টাকা এবং মাথা পিছু সকলের জন্য ৫ কেজি করে চাল বরাদ্দ করেছে তার কিছুই দেওয়া হচ্ছে না বলে দাবি ওই বিজেপি নেতার।

এমনকী করোনা মোকাবিলায় নিরবিচ্ছিন্ন স্বাস্থ্য পরিষেবা দিলেও চিকিৎসকদের প্রয়োজনীয় সুরক্ষার সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ বিজেপির। করোনা আক্রান্তের সংখ‌্যা বা তথ্য নিয়েও রাজ্য সরকার কারচুপি করছে বলে অভিযোগ গেরুয়া শিবিরের। বিজেপির নেতা-কর্মীদের ত্রাণ সরবরাহে বাধা দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলা হয়েছে।

বর্ধমানে লকডাউনের জেরে কর্মহীন ও বহু গরিব মানুষকে খাবার ও অন্য সামগ্রী বিলি করছেন বিজেপি নেতা-কর্মীরা। স্থানীয় ৫০-৬০ জন বিজেপি কর্মী বর্ধমান পুরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে গত ৩১ মার্চ থেকে পরিস্থিতির শিকার এই সমস্ত মানুষজনের হাতে চাল, ডাল, আলু প্রভৃতি খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়ার কাজ শুরু করেন।

বর্তমানে তাঁরা ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের মোট তিন জায়গায় রান্না করা খাবার দেওয়া শুরু করেছেন। বর্ধমান পুরসভা এলাকার ১২, ১৩, ১৪, ১৫, ১৬ নম্বর ওয়ার্ড ও সংলগ্ন গ্রামীণ এলাকার প্রায় ১৫০০ মানুষকে এই তিন জায়গা থেকে খাবার দেওয়া হচ্ছে। লকডাউন যতদিন চলবে তাঁদের এই পরিষাবাও ততদিন চলবে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প