কলকাতা: যাত্রীদের জন্য একগুচ্ছ নতুন সুযোগ সুবিধা নিয়ে আসতে চলেছে কলকাতা মেট্রো রেল। যেগুলির মধ্যে অন্যতম হচ্ছে মেট্রো স্টেশনে শৌচালয়।

দেশের মধ্যে প্রথম মেট্রো পরিষেবা চালু হয়েছিল গঙ্গাপারের শহর কলকাতায়। এই শহরের লাইফ লাইন বলে হয় মেট্রো রেলকে। কলকাতার মেট্রো স্টেশনগুলিতে শৌচালয় গড়ার দাবি দীর্ঘদিনের। অবশেষে পূরণ হতে চলেছে যাত্রীদের সেই চাহিদা। বৃহস্পতিবার মেট্রো রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে যাত্রীদের জন্য চারটি স্টেশনে গঠন করা হবে শৌচালয়।

শুধু তাই নয়, দমদম স্টেশনে নির্মাণ করা হবে এসক্যালেটর। মহানায়ক উত্তমকুমার এবং নোয়াপাড়ায় তৈরি হবে নতুন স্টেশন। ৫০০ কিলোওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন পাওয়ার প্ল্যান্ট তৈরি করা হবে দু’টি স্টেশনে। কবি সুভাষ এবং মহানায়ক উত্তম কুমার স্টেশন দু’টিকে গ্রিন স্টেশন করা হবে। এই স্টেশন দু’টি সম্পূর্ণভাবে সৌর শক্তিতে পরিচালিত হবে। মাটির নিচে থাকা একাধিক স্টেশনে বসানো হবে এলইডি লাইট। যাত্রী সুরক্ষায় নতুন রেক এবং যাত্রীদের স্বছন্দ্যের জন্য নতুন স্টেনলেস স্টিলের চেয়ার বসানো হবে বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনে। এছাড়াও সব মেট্রো স্টেশনে বিনামূল্যে ওয়াই-ফাই পরিষেবা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে মেট্রো রেল। চাঁদনি চক স্টেশনটিকে সম্পূর্ণ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত করা হবে খুব শীঘ্রই।