স্টাফ রিপোর্টার, হাবড়া: মাদক পাচার করতে গিয়ে পুলিশের জালে ধরা পড়ল কুখ্যাত খুনি এবং একাধিক ডাকাতির ঘটনায় মুল অভিযুক্ত হাতকাটা শ্যামল সহ তার তিন দুষ্কৃতী শাগরেদ। এই ঘটনায় আটক করা হয়েছে একটি চারচাকা গাড়ি। বুধবার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, হাবড়া থানার পুলিশ ওই কুখ্যাত দুষ্কৃতী ও তার সঙ্গীদের গ্রেফতার করে।

হাবড়া থানার পুলিশের গোপন অভিযানে ধরা পড়ে,শ্যামল দাস ওরফে সঞ্জয় (হাতকাটা শ্যামল)(৪০)বাড়ি হরিনঘাটা থানার নগরউখরা খ্রীষ্টানপাড়া এলাকায়,সুমন দাস(৪৪)বাড়ি বারাসত থানার কালিপাড়া এলাকায়,সুশান্ত বিশ্বাস ওরপে বাবু(৪৮)বাড়ি বারাসত থানার সত্যনারায়ন পল্লী এলাকায়,গৌর দেবনাথ(৪০)বাড়ি দত্তপুকুর থানার বামনগাছি এলাকায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,হাবড়া থানার পুলিশের কাছে গোপন সুত্রে খবর আসে, বদর-গুমা রোড ধরে একটি চারচাকার গাড়ি করে বদরের উদ্দেশ্যে চার সন্দেহ ভাজন দুষ্কৃতী তরল মাদক বিক্রির উদ্দেশ্যে আসছে। সেই মতো হাবড়া থানার পুলিশ বদর বাজারের কাছে নির্দিষ্ট রঙের গাড়ি সহ ওই চার ব্যক্তিকে আটক করেন।

গাড়িতে তল্লাশি চালালে গাড়িতে থাকা প্লাষ্টিকের কন্টেনার ভর্তি দশ লিটার নিষিদ্ধ তরল মাদক উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় চার কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেন পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে,হাতকাটা

শ্যামল এর আগে গাইঘাটা থানার কুলপুকুর পেট্রলপাম্প, দত্তপুকুর পেট্রলপাম্প সহ একাধিক খুনের ঘটনায় মুল অভিযুক্ত ছিলে। এমনকি হাবড়া-হরিনঘাটা সহ একাধিক থানা এলাকায় গাঁজা পাচার করতে গিয়ে পুলিশের জালে গ্রেফতার হয়ে জেলও খাটে বহুবার।

এছাড়া হাত কাটা বাবু সহ গৌরের বিরুদ্ধে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে একাধিক খুন,ছিনতাই সহ বিভিন্ন ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ চালিয়ে যাওয়ার ঘটনা একাধিক থানায় অভিযোগ রয়েছে। পাশাপাশি অন্য এক অভিযুক্তের বিরুদ্ধেও এলাকায় একাধিক অসামাজিক কার্যকলাপ চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ রয়েছে।ধৃতদের হাবড়া থানার পুলিশের পক্ষ থেকে বুধবার দুপুরে বারাসত আদালতে তোলা হয়।পাশাপাশি পাচারের কাজে ব্যবহৃত আটক চারচাকা গাড়িটি সিল করা হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ