ফাইল ছবি।

বর্ধমান: মমতার সভা ঘিরে বিতর্ক। বৃহস্পতিবার কালনার সুমদ্রগড় রেল মাঠে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা করার অনুমতি দিল না রেল দফতর। ফলে, তড়িঘড়ি স্থান পরিবর্তন করা হল মমতার সভায়। সভা হবে নাদনঘাট স্কুল মাঠে। সভা ঘিরে ইতিমধ্যে সংঘাতে কংগ্রেস-তৃণমূল।
তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে, তৃণমূল নেত্রীর সভার জন্য গত কয়েকদিন আগেই রেল দফতরের কাছে দরখাস্ত করা হয়। প্রথমদিকে রেলের তরফে সভার অনুমতি দিলেও শেষবেলায় তা দেওয়া হয়েনি বলে অস্বীকার করে রেল বলে অভিযোগ তৃণমূলের। বিষয়টির মধ্যে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে অভিযোগ। এমনকি, কংগ্রেসের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূল নেতারা। অন্যদিকে কংগ্রেসের অভিযোগ, বিষয়টি সম্পূর্ণ রেলের দায়িত্বে। মিথ্যা অভিযোগ করে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে কুৎসা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। এমনকি, রেলের বিশাল মাঠে ভিড় হবে না বুঝতে পেরেই স্থান বদলি করা হয়েছে বলে তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ আনে কংগ্রেস। ফলে, লোকসভা ভোটের আগে মমতার সভা বিতর্কে উত্তাল গোটা জেলা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.