তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: দিন যতই যাচ্ছে ততই বাড়ছে উদ্বেগ। ফের করোনার থাবা বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। এই হাসপাতালের এক চিকিৎসকের পর ফিমেল মেডিসিন ওয়ার্ডের এক নার্স করোনা আক্রান্ত হলেন। হাসপাতাল সূত্রে খবর, সম্প্রতি ঐ ওয়ার্ডের এক চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হন।

তারপর ঐ চিকিৎসকের সংস্পর্শে আসা চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্য কর্মীদের লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সেই রিপোর্ট এসে পৌঁছলে দেখা যায় ওই নার্স করোনা পজিটিভ। তবে এই মুহূর্তে তাঁর কোনও উপসর্গ না থাকায় তিনি ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’ই থাকছেন।

অন্যদিকে একটি সূত্রের খবর, করোনা আক্রান্ত ঐ নার্সের স্বামী লালারস সংগ্রহের সঙ্গে যুক্ত। ফলে বাড়ি না হাসপাতাল কোথা থেকে তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তা এখনও সঠিক ভাবে জানা যাচ্ছে না। আক্রান্তের নিবিড় সংস্পর্শে আসা চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্য কর্মী, ভর্তি থাকা রোগী ও তার স্বামীর লালারস সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

এবিষয়ে জানতে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডাঃ পার্থ প্রতিম প্রধানকে টেলিফোন করা হলে তিনি ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন, উনি নিজের বাড়িতেই আছেন। ভালো আছেন। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আপাতত হাসপাতালের ফিমেল মেডিসিন ওয়ার্ডে রোগী ভর্তি বন্ধ রাখা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট রোগীদের চিকিৎসার জন্য ওন্দা, বিষ্ণুপুর, ছাতনা সুপার স্পেশ্যালিটি ও খাতড়া মহকুমা হাসপাতালে যেতে অনুরোধ করা হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ