গ্রামোয়ন্নন প্রকল্পের বরাদ্দ অর্থের বিস্তারিত তথ্য জানতে রাজ্যের তিনটি দফতরকে চিঠি পাঠাল নার্বাড৷ চলতি বছরে গ্রামোয়ন্ননের খাতে ১১৫০ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছিল৷ কিন্তু জানা গিয়েছে, রাজ্য তার মধ্যে মাত্র ১৬ শতাংশ খরচ করতে পেরেছে৷ বাকি টাকার খরচের হিসাবের পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট দিতে হবে রাজ্যকে৷ এমনকি যে প্রকল্পগুলি ধীরগতিতে চলছে৷ বা এখনও পর্যন্ত শুরু হয়নি তার বিস্তারিত তথ্য জানতে চেয়েছে নার্বাড৷এমনকি যে তিনটি দফতরে চিঠি পাঠানো হয়েছে তার আলাদা আলাদা হিসাব নার্বাডকে দিতে হবে৷ জানা গিয়েছে, যদি বরাদ্দ অর্থ সরকার প্রকল্পের কাজে ব্যায় না করে থাকে৷ সেক্ষেত্রে বরাদ্দ ফেরত নিয়ে নেওয়া হবে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।