শ্রীনগর: ফের আক্রমণের শিকার হলেন জম্মু-কাশ্মীরের বিধায়ক ইঞ্জিনিয়র আব্দুল রশিদ। গত বারের মত এবারেও তাঁর মুখে ছেটানো হল পেনের কালি। এখানেই শেষ নয়, মুখে কালি ছেটানোর পাশাপাশি কালো পতাকা দিয়ে আব্দুল রশিদের মিছিল আটকানো হয় এবং পাথর ছুঁড়ে ভেঙে দেওয়া হয় তাঁর গাড়ির কাচ। তবে এবার ভিন্‌ রাজ্যে নয়, নিজের রাজ্যেই আক্রমণের শিকার হলেন আব্দুল রশিদ। এই ঘটনায় তিনি আহত হয়েছেন এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সদস্যরাই রশিদকে আক্রমণ করেছে বলে জানা গিয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর শ্রীনগরে ‘বিফ পার্টি’র আয়োজন করার জন্য আক্রমণের শিকার হয়েছিলেন লোলাবের বিধায়ক আব্দুল রশিদ। কিন্তু এবার তিনি এরকম কোনও পার্টির আয়োজন করেননি। কেবল দোদা জেলার ভদেরওয়ায় একটি মিছিলের আয়োজন করেছিলেন। পুলিশ সূত্রের খবর, গত দু’দিন চিনাব উপত্যকায় ছুটি কাটিয়ে বুধবারই ভদেরওয়ায় আসেন রশিদ। ভদেরওয়ায় এসেই সরকারি ডাকবাংলোয় সমর্থকদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন তিনি। তারপর দুপুর দেড়টা নাগাদ এখানে একটি মিছিল করার কথা ছিল তাঁর। যদিও স্থানীয় প্রশাসন তাঁকে মিছিলের অনুমতি দেয়নি। তবুও গাড়ি করে শোভাযাত্রার মত মিছিল বের করেন রশিদ। সেই শোভাযাত্রা ভদেরওয়া থেকে তিন কিলোমিটার যাওয়ার পরেই ভিএইচপি-র সদস্যরা মিছিলের রাস্তা আটকায়। তারা কালো পতাকা দেখিয়ে ‘বিফ পার্টি’ নিয়ে রশিদের বিরুদ্ধে স্লোগানও দিতে থাকে। এরপর রশিদের গাড়িটি থামতেই ভিএইচপি সদস্যরা তাঁকে লক্ষ্য করে পেনের কালি ছোঁড়ে এবং গাড়িটিকে লক্ষ্য করে ইট, পাথর ছুঁড়তে থাকে। পাথরের আঘাতে গাড়ির কাচ ভেঙে যায় এবং আব্দুল রশিদও আহত হন। তারপর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।   

 

 

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও