কলকাতা: ইস্টবেঙ্গলে পেশাদারিত্বের ছোঁয়া নতুন কোনও ঘটনা নয়। তবে নতুন ইনভেস্টর আসার পর যেন পাশাদারিত্বের মোড়কে মুড়ে ফেলা হচ্ছে ক্লাবকে। পড়শি ক্লাব যখন মাঠে দর্শক সমাগমের অভাবে হা-পিত্যেশ করছে, তখন লিগ চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে থাকা ইস্টবেঙ্গলের খেলায় ৩৫-৪০,০০০ দর্শক এখন আকচার ঘটনা। এরইমধ্যে লাল-হলুদের পেশাদারিত্বের তালিকায় যুক্ত হল নতুন পালক। ক্লাবের প্রত্যেক ফুটবলারদের হাতে বৃহস্পতিবার তুলে দেওয়া হল পার্সোনালাইজড ওয়াটার সিপার। অর্থাৎ অনুশীলন বা ম্যাচ চলাকালীন প্রত্যেক ফুটবলার এবার নিজের নাম লেখা ওয়াটার সিপার ব্যবহার করবেন।

নতুন এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের কারণ হিসেবে ক্লাব সূত্রে জানানো হয়েছে, এই ওয়াটার সিপার অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর। তাই শুধুমাত্র আধুনিকতার কারণেই নয়, পাশাপাশি ফুটবলারদের স্বাস্থ্যের বিষয়টিও সমানভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের পিছনে। জানা গিয়েছে সহকারী কোচ তথা ভিডিও অ্যানালাইজার মারিও রিবেরার অনুরোধের ভিত্তিতেই ক্লাবে এই আধুনিকতার ছোঁয়া। একইসঙ্গে এই সিদ্ধান্তে খুশি ফুটবলার থেকে সাপোর্ট স্টাফ সবাই।

এদিকে আগামী সোমবার আই লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আইজলের মুখোমুখি ইস্টবেঙ্গল। বৃহস্পতিবার থেকেই পাহাড়ি দলটির বিরুদ্ধে স্ট্র্যাটেজি সাজানো শুরু করে দিলেন লাল-হলুদ কোচ। কার্ড সমস্যায় আইজল ম্যাচে অ্যাকোস্টার সার্ভিস পাবেন না আলেজান্দ্রো। পরিবর্তে শুরু করবেন সালামরঞ্জন। চুলোভার পরিবর্তে প্রথম একাদশে সামাদের শুরু করার সম্ভাবনা প্রবল। লিগের মোক্ষম সময় আইজলের বিরুদ্ধে এই ম্যাচ আক্ষরিক অর্থেই ডু অর ডাই। পরের ম্যাচেই কাশ্মীরে গিয়ে খেলতে হবে রিয়াল কাশ্মীরের বিপক্ষে। যদিও তাঁর এগে আইজল ম্যাচে অ্যাকোস্টা না থাকায় শুরু থেকেই পাঁচ বিদেশীকে ঝালিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা লাল-হলুদ কোচের মাথায়।