স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: চুরি যাওয়া সোনার গয়না ফিরে পেলেন কৃষক দম্পতি। পুলিশের তৎপরতায় কষ্টার্জিত পয়সায় কেনা গয়না ফিরে পেয়ে যারপরনাই খুশি তারা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কুমারগঞ্জের খানপুর এলাকার বাসিন্দা জাজমহল সরকারের বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটে। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে রাতে তালা ভেঙে ঘরের ভিতরে ঢুকে সোনার গয়না নিয়ে চম্পট দেয় চোর। ঘটনার পরদিনই কুমারগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি ওই দম্পতি।

এরপর তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে যে, ঘটনার সময় রুবেল মন্ডল নামের এক যুবক জাজমল সরকারের বাড়ির আশপাশে ঘোরাঘুরি করছিলো। প্রতিবেশীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে ওইদিনই স্থানীয় নবগ্রামে বাড়ি রুবেলকে গ্রেফতর করে পুলিশ। জেরার মাধ্যমে তার কাছ থেকে চুরি যাওয়া গলার হার সমেত সমস্ত গহনা উদ্ধার করতে সফল হয় পুলিশ। এই ঘটনায় আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আদালতের নির্দেশে শুক্রবার বালুরঘাটে জাজমহল সরকার ও তার স্ত্রী মাসুদা বিবির হাতে গহনা গুলি তুলে দেন পুলিশ সুপার।

পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত জানিয়েছেন, চুরির ঘটনায় অভিযোগ পেয়েই পুলিশ তদন্তে নামে। পরদিনই মূল অভিযুক্ত রুবেল মণ্ডলকে গ্রেফতার করা হয়। তার কাছ থেকে চুরি যাওয়া গলার সোনার হার ও কানের দুল সহ সমস্ত গয়না উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিন জাজমল সরকার জানিয়েছেন, তিনি পেশায় কৃষক। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি স্ত্রী সহ তাঁরা দুইজনে শ্বশুর বাড়ি গিয়েছিলেন। সেই সুযোগে রাতে ঘরের তালা ভেঙে ভেতরে চোর ঢুকে আলমারি থেকে সোনার গয়না নিয়ে পালিয়ে ছিল। পরদিনই থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছিলেন। অবশেষে চুরি যাওয়া সোনার গয়না গুলি ফিরে পেয়ে খুবই খুশি বলে জানিয়েছেন তিনি।