স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পাঁচ দিনের মধ্যে চুরির ঘটনার কিনারা করল কসবা থানার পুলিশ৷ নিজস্ব সোর্সকে কাজে লাগিয়ে চোরকে ধরেছে পুলিশ৷ একই সঙ্গে চুরি করা সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে৷ পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম সনৎ চৌধুরী৷ এই ক’দিন সোনারপুর এলাকায় গা ঢাকা দিয়েছিল সে৷ তার কাছ থেকে চুরি যাওয়া সোনার গয়না ও নগদ ১ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে৷

গত ৮ এপ্রিল কসবা থানায় একটি চুরির অভিযোগ দায়ের করেন প্রবীর পোদ্দার নামে এক ব্যক্তি৷ কসবার হালতু কায়স্থ পার্কের একটি বাড়িতে দিনে দুপুরে ঘটে চুরির ঘটনাটি৷ ওই দিন প্রবীর বাবুর বাড়ির মূল দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে লুঠপাত চালায় দুষ্কৃতীরা৷ গোটা ঘর তছনছ করে দেয়৷ আলমারি ভেঙে সোনার গয়না ও নগদ টাকা চুরি করে পালায় চোরেরা৷

পুলিশের কাছে অভিযোগে প্রবীর বাবু জানিয়েছেন, বাউটি, দু’টি বালা, তিনটি চেন, ন’জোড়া কানের দুল, চারটি আংটি সহ প্রায় ১০০ গ্রাম ওজনের সোনার গয়না ও নগদ তিন লক্ষ টাকা চুরি গিয়েছে৷ তদন্তে নেমে পুলিশ কয়েকজনকে জেরা করে৷ নিজস্ব সূত্র মারফত সনৎ নামে ওই চোরের হদিশ পায়৷ এরপর ১২ এপ্রিল তাকে সোনারপুর থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়৷

ধৃতের কাছ থেকে পুরো টাকা বাদে প্রায় সব কিছুই উদ্ধার হয়েছে৷ পাঁচ দিনের মধ্যে চুরির ঘটনার কিনারা করলেও পুলিশ জানিয়েছে তদন্তে তাদের যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছে৷ কেননা জড়িতরা কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করে না৷ ফলে প্রযুক্তি নয়, নিজস্ব সোর্স হকার থেকে শুরু করে সবজি বিক্রেতা তাদের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে চোরকে ধরা হয়েছে৷