প্যারিস: চোট যেন তাঁর কেরিয়ারে প্রধান অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রিমিয়র লিগ জায়ান্ট ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে রাউন্ড অফ ১৬’র প্রথম লেগে চোটের কারণে মাঠে নামতে পারেননি ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার দি স্যান্টোস জুনিয়র। যদিও অ্যাওয়ে ম্যাচে ২-১ গোলে জয় তুলে নিয়ে আডভান্টেজ ছিল প্যারিসের ক্লাবটি। কিন্তু বুধবার রাতে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে সব হিসেব-নিকেশ পালটে দিয়ে দুরন্ত জয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যান ইউ।

অতিরিক্ত সময়ে পেনাল্টি হজম করে এবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের জার্নি শেষ প্যারিস সাঁ জা’র। আর স্ট্যান্ডে বসেই এদিন দলের করুণ আত্মসমর্পণ চাক্ষুষ করলেন পিএসজি’র তারকা ফুটবলার। কিন্তু ম্যাচ হারের পর দলের খেলায় নয়, বরং নেইমার ক্ষোভ উগরে দিলেন ম্যাচ অফিসিয়ালদের উপর। বুধবার নির্ধারিত সময় পর্যন্ত এদিন ঘরের মাঠে ১-২ গোলে পিছিয়ে ছিলেন বুঁফোরা। এই স্কোরলাইনে ম্যাচ শেষ হলেও অ্যাওয়ে ম্যাচে ২-০ গোলে জয়ের সুবাদে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে যেত পিএসজি।

আরও পড়ুন: নাটকীয় জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে ম্যাঞ্চেস্টার

কিন্তু ইনজুরি সময় ড্যালটের শট পেনাল্টি বক্সে কিমপেম্বের হাতে লাগতেই সমীকরণ বদলে যায় ম্যাচের। ম্যান ইউয়ের আবেদনে সাড়া দিয়ে ভিএআরের সাহায্যে রেড ডেভিলসদের পেনাল্টি পুরস্কৃত করেন রেফারি। স্পট-কিক থেকে স্কোরলাইন ৩-১ করে দলকে শেষ আটে পৌঁছে দেন ম্যান ইউ স্ট্রাইকার রাশফোর্ড। কিন্তু নেইমারের মতে ইনজুরি সময়ের ওই ঘটনায় কোনওভাবেই পেনাল্টি প্রাপ্য নয় ম্যান ইউয়ের।

আরও পড়ুন: অতিরিক্ত সময়ের থ্রিলার জয়ে কোয়ার্টারে পোর্তো

ম্যাচ শেষের কিছুক্ষণের মধ্যেই এবিষয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। রেফারিকে তিরস্কার করে নেইমার লেখেন, ‘এটা অন্যায়। উয়েফা চারজন এমন অফিসিয়ালদের ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দিয়েছে, যাদের ফুটবল কিংবা ভিএআর সম্পর্কে ধারণা নেই। হাতের পিছনে বল এসে লাগলে কোন নিয়মে সেটা হ্যান্ডবল হয়?’ ইনস্টাগ্রামে প্রশ্ন তোলেন ব্রাজিলিয়ান।

আরও পড়ুন: ধোনির বাড়িতে ডিনার সারল ভারতীয় দল

উল্লেখ্য সোল্কজায়েরের প্রশিক্ষণে ছন্দবদ্ধ ফুটবল উপহার দিলেও এদিন ম্যান ইউয়ের হয়ে বাজি ধরতে নারাজ ছিলেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু সব হিসাব ওলট পালট করে প্যারিসে বুধবার নতুন ইতিহাস লেখে মাঞ্চেস্টার৷ ঘরের মাঠে ০-২ গোলে পরাজিত হওয়া সত্ত্বেও ফিরতি লেগে পিএসজিকে তাদের দূর্গে ৩-১ গোলে পরাজিত করে প্রিমিয়র লিগ জায়ান্টরা। দুই পর্ব মিলিয়ে প্রি-কোয়ার্টারের লড়াই ৩-৩ গোলের সমতায় নিষ্পত্তি হলেও পিএসজি’র (২) তুলনায় একটি অ্যাওয়ে গোল বেশি করার সুবাদে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের টিকিট পকেটে পুরে নেয় ওলে গানার সোল্কজায়েরের ছেলেরা (৩)।