দক্ষিণ দিল্লির অভিজাত এলাকায় নাবালিকা পরিচারিকার ওপর নৃশংস অত্যাচার৷ গ্রেফতার গৃহকর্তৃ৷ পনেরো  বছরের ওই নাবালিকা পরিচারিকার ওপর অকথ্য অত্যাচার চালাতেন গৃহকর্তৃ বন্দনা ধীর৷ নিজের পোষা কুকুরদের দিয়ে মেয়েটিকে আক্রান্ত করেছিলেন তিনি৷ এখানেই শেষ নয়, নাবালিকা পরিচারিকার গায়ে ছুরি দিয়ে আঘাত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনেক সদস্যরা৷ সোমবার সন্ধে ৬টা  নাগাদ সেই নাবালিকা পরিচারিকাকে উদ্ধার করে ওই স্বেচ্ছা সেবী সংস্থা৷ মেয়েটিকে উদ্ধার করার জন্য প্রায় তিনঘণ্টা ধরে অপেক্ষা করতে হয় ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটিকে৷ ঘরে ঢোকার পর তাঁরা দেখেন ওই নাবালিকা পরিচারিকা নগ্ন অবস্থায় পড়ে রয়েছে মেঝেতে৷ তার গায়ে অজস্র ক্ষত রয়েছে৷গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই পরিচারিকাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।