বুধবার কানপুরে সেঞ্চুরির পর শিখর ধাওয়ান৷ ছবি: ক্রিক ইনফো

বুধবার সকালে গ্রিন পার্কে যখন মহেন্দ্র সিং ধোনি টস জিতে ক্যারিবিয়ানদের আগে ব্যাট করতে পাঠান, তখনই ম্যাচের ভাগ্য অনেকটা পরিষ্কার হয়ে যায়৷ ইদানীং কালে উপমহাদেশে পরে ব্যাট করা মানেই প্রথম থেকেই অ্যাডভান্টেজে থাকে বওই দল৷ এদিনও তার অন্যথা হয়নি৷ ওয়েস্ট ইন্ডিজের ২৬৩ রানের জবাবে ২৩ বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় ভারত৷ সেইসঙ্গে তিন ম্যাচের সিরিজও ২-১ ব্যবধানে জিতে নিতে সফল ধোনিরা৷

প্রায় চার বছর পর কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হল কানপুরে৷ এই ম্যাচকে ঘিরে উত্তেজনাও ছিল চরম৷ গোটা নভেম্বর জুড়েই ম্যাচের টিকিটের চাহিদা মেটাতে উত্তরপ্রদেশ ক্রিকেট কর্তাদের প্রায় হিমশিম খেতে হয়েছে৷ এদিন ম্যাচ শুরু হওয়ার এক ঘণ্টা আগের থেকেই গোটা স্টেডিয়াম ভরে যায়৷ সকালের ঘন কুয়াশায় শুরুটা খারাপও করেননি দুই ভারতীয় পেসার ভুবনেশ্বর কুমার এবং মোহিত শর্মা৷ ভুবনেশ্বরের ইনসুইং-এ ওপেনার জনসন চার্লস বোল্ড হলেও, ক্যারিবিয়ানদের রানকে টেনে নিয়ে যান কিয়েরন পাওয়েল (৭০) এবং মার্লন স্যামুয়েলস (৭১)৷ দু’জনকেই প্যাভিলিয়ানে ফেরান অফ-স্পিনার রবীচন্দ্রন অশ্বিন৷ চার নম্বরে নেমে সফল ড্যারেন ব্র্যাভোও৷ ৫১ রান করে শেষপর্যন্ত অপরাজিত থেকে যান তিনি৷ মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানরা রান পেলেও, রান তোলার গতি কম থাকায় প্রথমে ব্যাট করে এদিন ২৬৩ রানের বেশি করতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ৷ ব্যাট করতে নেমে ভারতের ব্যাটিং-এর প্রধান ভরসা ওপেনার রোহিত শর্মা (৪) এবং তিন নম্বরে নামা বিরাট কোহলি (১৯) রান করে আউট হয়ে গেলেও, ভারতের ইনিংসকে একাই টেনে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব নেন শিখর ধাওয়ান৷ মাত্র ৯৫ বলে ১১৯ রান করেন তিনি৷ তাঁর পাশাপাশি এদিন ব্যাট হাতে সফল যুবরাজ সিং-ও৷ সুনীল নারিনের বলে ৫৫ রান করে আউট হন তিনি৷ সামনেই দক্ষিণ আফ্রিকা সফর৷ টেস্ট সিরিজের পর এবার ওয়ান ডে সিরিজেও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হেলায় হারিয়ে ডেল স্টেইনদের মুখোমুখি হওয়ার আগে কিছুটা আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে সফল ধোনিরা৷