file image

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: লকডাউনের মেয়াদ বাড়ায় তীব্র আর্থিক সঙ্কটে পড়েছেন বেসরকারি পরিবহণের কর্মীরা। এই পরিস্থিতিতে বাসকর্মীদের জন্য সরকারি সাহায্য চেয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিলেন বাসমালিকদের একাধিক সংগঠন। ওয়েস্ট বেঙ্গল বাস মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপনারায়ণ বসু জানান,‘‘বেসরকারি পরিবহণের হাল খুব খারাপ। সঞ্চয় ভেঙে পরিবার চালাচ্ছেন সকলেই। পরিস্থিতির কথা জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছি।’’

রাজ্য এবং ভিন রাজ্য মিলিয়ে প্রায় ৪-৫ হাজার বাস শ্রমিক এদিক-ওদিক ছড়িয়ে রয়েছেন। বাসকেই তাঁরা বানিয়ে ফেলেছেন আশ্রয় শিবির। কিন্তু রেশন ও চিকিৎসার অভাবে বাসকর্মীরা জর্জরিত। কদিন আগেই শ্রমিক সংগঠন, ও বাসমালিকদের পক্ষ থেকে তাদের চাল-ডাল-আলু দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে এই রসদ জোগানো সম্ভব নয় বলেই জানিয়েছেন বাসমালিকরা।

এদিকে , জরুরি পরিষেবার কাজে অ্যাপ-ক্যাব এবং কিছু ট্যাক্সিকে চলার অনুমতি দেওয়া হতে পারে শুনে সামান্য আশার আলো দেখেছিলেন চালকেরা। কিন্তু সংক্রমণের আশঙ্কার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এখনও কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি।

আর্থিক সঙ্কটের মুখে মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যের মুখ্যসচিবকে দুর্দশার কথা জানিয়ে চিঠি লিখেছেন ওয়েস্ট বেঙ্গল অনলাইন ক্যাব অপারেটর্স গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রনীল বন্দ্যোপাধ্যায়ও। শুধু বেসরকারি বাস, মিনিবাস অ্যাপ-ক্যাব, ট্যাক্সি চালকরাই নয়, অটোচালকরাও খুব সমস্যায় আছেন। অটোচালকদের অনেকেই এখন সবজি, মাছ বিক্রি করছেন।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প