মুম্বই:  ৯ বছর পর আবার একসঙ্গে শাহিদ-করিনা। এই খবরেই ‘উড়তা পাঞ্জাব’-এর টি আর পি বেড়েছে হু হু করে। তবে ফ্যানদের নিরাশ করে শাহিদ জানালেন, এছবিতে করিনার সঙ্গে একটাও শট নেই তাঁর। শুধু তাই নয়, হায়দারের কথায় করিনার সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার না করার খুশি তিনি।

শাহিদ কাপুর ‘দ্য রকস্টার’

আব্রামের ছোট্ট জিজ্ঞাসা

পুরনো ঝামেলা মিটিয়ে আবার একসঙ্গে পর্দায় আসছেন শাহিদ-করিনা। যদিও ‘জব উই মেট’ জুটির বিপরীতে রয়েছে অন্য নায়ক-নায়িকা। কিন্তু তাতে কি এক ছবিতেও রয়েছে শাহিদ-করিনা। স্বাভাবিক প্রশ্ন উঠে আসে, “ অনেকদিন একসঙ্গে কাজ করে কেমন লাগল”? বলার সঙ্গে সঙ্গেই প্রথম বোমাটা ফাটালেন শাহিদ। বললেন, ”আপনারা মানে কারা? ছবিটা তো চার চরিত্রের গল্প নিয়ে। তাদের মধ্যে কাদের কথা জানতে চাইছেন আপনি”? তার পরে নিজেই উত্তরটা দিলেন নায়ক। বললেন, ”দেখুন, পুরো ছবিটায় আমার করিনার এক সঙ্গে একটাও দৃশ্য নেই। অতএব আপনি যদি জানতে চান, এত দিন পরে কাজ করে কেমন লাগল, আমায় একটাই উত্তর দিতে হয়। এত দিন পরে করিনার সঙ্গে এতটুকুও স্ক্রিন শেয়ার না করে আমি খুব মজা পেয়েছি”।

“বাবা হতে চলেছি আমি…”

শুটিংয়ের মাঝে জ্ঞান হারালেন রণদীপ হুডা

ইতিমধ্যে পোস্টারে নায়ক-নায়িকার লুক থেকে ট্রেলারে নজর কেড়েছে সবার। উত্তরপ্রদেশের যুবাদের মধ্যে বাড়তে থাকা ড্রাগের নেশা নিয়ে তৈরির এই ছবি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।