পশু খাদ্য কেলেঙ্কারিতে লালু প্রসাদ যাদবকে দোষী সাব্যস্ত করার পর দিনই কংগ্রেস সাংসদ রসিদ মাসুদকে চার বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল আদালত৷ সোমবার কংগ্রেসের রাজ্যসভা সাংসদ রসিদ মাসুদের বিরুদ্ধে এই নির্দেশ দিয়েছে দিল্লির এক বিশেষ আদালত৷ ন’এর দশকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী থাকাকালীন বেআইনিভাবে কয়েকজন পড়ুয়াকে মেডিক্যালে সুযোগ করে দিয়েছিলেন মাসুদ৷ পড়ুয়াদের মধ্যে ছিল মাসুদের ভাইপোও৷ পরে ঘটনার তদন্তভার পায় সিবিআই৷ আদালতে সিবিআইয়ের আইনজীবী মাসুদকে সাত বছরের কারাদণ্ড দেওয়ার আবেদন করেন৷ তিনি বলেন, ‘আইন প্রণয়নকারীই আইন ভেঙেছেন৷ ফলে তার কঠিন শাস্তি পাওয়া উচিত৷ ’
ফৌজদারি মামলায় দোষী সাব্যস্তদের আইনসভার সদস্য পদ খারিজ ও ভোটে লড়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারির পর এই প্রথম কোনও আইনসভার সদস্যের বিরুদ্ধে সাজা ঘোষণা করা হল৷ মাসুদের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নির্ভর করবে আগামীকালের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকের উপর৷ কারণ, ওই বৈঠকেই ফৌজদারী মামলায় অভিযুক্ত রাজনীতিকদের আড়াল করতে সরকারের আনা অর্ডিন্যান্স নিয়ে চরম সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে৷ যদি অর্ডিন্যান্সটি প্রত্যাহার করে সরকার৷ তবে মাসুদের সাংসদ পদ খারিজ হয়ে যাবে৷ পাঁচ বছর ভোটেও লড়তে পারবেন না তিনি৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।