মিস্টার অঞ্জলি তেন্ডুলকর লেখা স্কোর বোর্ডের এই ছবিটা পাঠিয়েছেন কলকাতা24x7 এর এক পাঠক৷

ছিল রুমাল হয়ে গেল বেড়াল৷ সচিনের ১৯৯ টেস্টে ফের বিতর্কে জড়ালো সিএবি৷ মঙ্গলবারই সচিনের নামের বানানের বিতর্কের জেরে নাভিশ্বাস হওয়ার জোগাড় হয়েছিল সুবীর গঙ্গোপাধ্যায়দের৷ বুধবার টেস্টের প্রথম দিনেই ফের সেরকমই বিতর্কের ঢেউ আছড়ে পড়ল সিএবির গায়ে৷ এবারের ভুল আরও মারাত্বক৷ একেবারে একজন পূর্ণ বয়স্ক মহিলাকে ‘পুরুষ’ বলে চালান করে দিলেন ইলেকট্রনিক্স স্কোর বোর্ডের স্কোরার৷ সেই মহিলা আবার যে সে কেউ নন৷ স্বয়ং সচিনের স্ত্রী অঞ্জলি৷ এদিন তিনি পুত্র অর্জুনকে নিয়ে ইডেনে এসেছিলেন মাস্টার ব্লাস্টারের ১৯৯ তম ম্যাচের সাক্ষী থাকতে৷ এদিন অঞ্জলিকে লাঞ্চ ব্রেকের সময় স্বাগত জানাতে গিয়ে ইডেনের হাই কোর্ট প্রান্তের স্কোর বোর্ডে ভেসে ওঠে ‘ওয়েলকাম টু মিস্টার অঞ্জলি তেন্ডুলকার এন্ড মাস্টার অর্জুন তেন্ডুলকার অ্যাট ইডেন গার্ডেন্স৷’ বেশ কয়েক মিনিট অঞ্জলিকে ‘মিস্টার’ সম্বোধন করা লেখাটি স্কোর বোর্ডে ভেসেছিল৷ স্কোরারের ভুল ভাঙতেই সরিয়ে দেওয়া হয় লেখাটি৷ ততক্ষণে যা হওয়ার হয়ে গিয়েছে৷ মাঠে উপস্থিত হাজার হাজার দর্শকরা এবং টেলিভিশনের দর্শকরাও হাসতে শুরু করেছেন৷ অঞ্জলি ও অর্জুন ছিলেন প্রেসিডেন্ট বক্সে৷ বানান বিতর্কের সময়ে সিএবির পক্ষ থেকে এজেন্সির ঘাড়ে দোষ চাপানো হয়েছিল৷ বলা হয়েছিল সেই সংস্থার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেবেন তাঁরা৷ এবারের ভুলের জন্য কার ঘাড়ে দোষ চাপাবেন তাঁরা? সিএবির যুগ্ম সচিব সুবীর গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন,‘এটা সত্যিই দূর্ভাগ্যজনক৷ কিছু না কিছু ভুল হয়েই চলেছে প্রতিদিন৷ আমরা ম্যাচের শেষে এই সংস্থার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেব৷ আমরা এমন ঘটনার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী৷’