চেন্নাই: বার্ষিক সাধারণ সভা পিছিয়ে নিজেদের সংবিধানই লঙ্ঘন করল ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)৷ নারায়ণস্বামী শ্রীনিবাসনের অঙুলি হিলনেই আইনের পরোয়া না-করে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে বোর্ডের এজিএম অর্থাৎ বার্ষিক সাধারণ সভা৷

নির্ধারিত ৩০ সেপ্টেম্বরের পরিবর্তে বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভা ডাকা হয়েছে ২০ নভেম্বর৷ শুক্রবার চেন্নাইয়ে বোর্ডের ওয়ার্কি কমিটি এতে সিলমোহরও দিয়েছে৷ ফের ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে ফেরার জন্য এটাই শ্রীনির পন্থা৷ ষষ্ঠ আইপিএল-এ স্পট-ফিক্সিংয়ের অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে বোর্ড প্রেসিডেন্ট থেকে নির্বাসিত হন শ্রীনি৷ কিন্তু, তৃতীয়বার বোর্ড প্রেসিডেন্ট পদে ফিরতে মরিয়া শ্রীনি৷ তাই বোর্ডের নিয়মের তোয়াক্কা না-করে বার্ষিক সাধারণ সভা পিছিয়ে দেন তামিল ব্রাহ্মণ৷ বোর্ডের ১৬.১ ধারায় পরিষ্কার বলা রয়েছে, ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে যে ভাবেই হোক বার্ষিক সাধারণ সভা করতে হবে৷ কিন্তু, শ্রীনির নির্দেশে পিছিয়ে দেওয়া হয় বোর্ডের এজিএম৷