স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: দীর্ঘদিন ‘গ্রীণ জোনে’ থাকা বাঁকুড়ায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান। বর্তমানে সেই সংখ্যা হাফ সেঞ্চুরি অতিক্রম করে ফেলেছে। আর এই পরিস্থিতিতে জেলায় যাত্রী পরিবহনের অন্যতম ভরসার জায়গা বেসরকারী বাস পরিষেবা সম্পূর্ণ বন্ধ।

দীর্ঘ দু’মাসেরও বেশী সময় বাঁকুড়া গোবিন্দনগর বাস স্ট্যাণ্ডে সার সার দিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে বেসরকারী বাস গুলি। ফলে বাস মালিকদের পাশাপাশি চরম সমস্যায় দিন আনা দিন খাওয়া বাস শ্রমিকেরা। ‘দু’কেজি চাল আর তিন কেজি আলু দিয়ে সংসার চলে না’ অভিযোগ করে বাস শ্রমিক মিঠুন রজক বলেন, বাস মালিক থেকে রাজ্য সরকার কেউই তাদের মতো অসহায় বাস শ্রমিকদের কথা ভাবেনি। দীর্ঘ লকডাউনে তারা অর্দ্ধাহারে, অনাহারে আছেন বলে তিনি জানান।

একই অভিজ্ঞতার কথা শোনান আরও এক বাস শ্রমিক পঞ্চাশোর্ধ শ্যাম কুণ্ডু। তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকার নির্দ্ধারিত যাত্রী নিয়ে রাস্তায় বাস নামালে কর্মীদের বেতন তো দূরঅস্ত, তেলের খরচটাই উঠবে না। আর এই করোনা পরিস্থিতিতে সংসারে নিত্য অভাব থাকলেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তিনি বাসে উঠবেন না বলেই জানিয়েছেন।

বাস মালিক নিরঞ্জন মুখোপাধ্যায় বলেন, সরকার নির্ধারিত যাত্রী নিয়ে বাস চালানো সম্ভব নয়। প্রতিদিনকার খরচ যেমন উঠবে না রাস্তায় অপেক্ষারত তেমনি যাত্রীদের সঙ্গে ঝামেলা তৈরী হবে। একই সঙ্গে সরকারীভাবে বাস শ্রমিকদের ইন্স্যুরেন্সের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।